২৪শে সেপ্টেম্বর ২০২১ খ্রিস্টাব্দ / ৯ই আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ / ১৬ই সফর ১৪৪৩ হিজরি / আজ শুক্রবার এখন সময় দুপুর ১২:৩৩মিনিট / এখন শরৎকাল
এখনই শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ

নওগাঁয় এক অবিবাহীত লম্পট যুবকের সাথে পরক্রিয়া প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে স্বামী সংসার থেকে বিতারিত হয়েছেন ৪ সন্তানের জননী শেফালী রানী পাহান (৩৫) নামের আদিবাসী পরিবারের এক গৃহবধূ। গ্রাম্য সালিসে পরক্রিয়া প্রেমিক ঐ নারীকে বিয়ে করতে চাওয়ায় উপস্থিত লোকজনের সামনে সালিসের মাতব্বররা ( স্টাম্পে) লিখিত করার মাধ্যমে পূর্বের স্বামী – সংসারের সাথে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটালেও দীর্ঘ ৫ দিনেও পরক্রিয়া প্রেমিকের সাথে ঐ নারীর বিয়ের কোন উদ্যোগ নেয়নি মাতব্বররা। ফলে নারীটি এখন তার পিতার বাড়ি জয়পুরহাটে অবস্থান করছেন। অপরদিকে ঘটনার ( সালিসের) পর থেকে প্রেমিক যুবকও পালিয়ে রয়েছেন। এলাকায় আলোচিত এঘটনাটি ঘটেছে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর ইউনিয়নের বড় মহেষপুর ছয়ঘাটি গ্রামে।

ঐ গ্রামের অবিনাশ পাহান জানান, আমার দীর্ঘ প্রায় ২০ বছরে গড়ে তোলা সংসার সহ আমার সন্তানদের জীবন তছনছ করে দিয়েছেন আমাদের আদিবাসী সংগঠনের ( গ্রামের আদিবাসী সমিতি’র) প্রভাবশালী সভাপতি ও ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক একই গ্রামের রবি পাহানের অবিবাহীত লম্পট ছেলে সৌখিন পাহান (৩৮)

তিনি আরো বলেন, বিয়ের পর থেকে আমি ও সেফালি পাহান ভালোভাবেই সংসার পেতে ছিলাম আমাদের বড় ছেলে দশম শ্রেণীতে পড়েন ও দুটি জমজ মেয়ে ৭ ম ও ৮ম শ্রেণীতে লেখাপড়া করছেন এছাড়া ছোট ছেলের বয়স ও ১০ বছর চলছে জানিয়ে অবিনাশ পাহান বলেন, প্রায় ৪/৫ বছর পূর্বে আমাদের গ্রামের সমিতির সভাপতি ও ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক সৌখিন পাহান বিভিন্নভাবে কৌশলে আমার স্ত্রীর সাথে পরক্রিয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। যা গ্রামের লোকজনের মাঝে প্রকাশ পাওয়ার পর আমি নিজেও জানতে পারার কারনে আমাদের পরিবারে বিবাদের সৃষ্টি হয়।
এরিমধ্যেই ২১ শে ডিসেম্বর সোমবার দিনগতরাতে আমি গেরস্তের বাড়িতে পাহারার কাজে থাকার সুযোগনিয়ে পরক্রিয়া প্রেমিক সৌখিন পাহান আমার স্ত্রীর ঘড়ে ঢুকে পরক্রিয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পরলে দশম শেণীতে পড়ুয়া আমার বড় ছেলে টেরপেয়ে তাদেরকে ঘড়ে আটক করে আমাকে খবর দেয়। এঘটনায় পরেদিন রাতে গ্রামের লোকজন ও স্থানিয় ইউপি সদস্য সহ মাতব্বররা সালিসে বসেন, সালিশে সেফালী রানী পাহানের দুভাই ও উপস্থিত ছিলেন। সালিশের এক পর্যায়ে লম্পট সৌখিন পাহান পরক্রিয়া সম্পর্কের কথা শিকার করে আমার স্ত্রী সেফালী রানী পাহানকে বিয়ে করতে চাইলে সে সময় সেফালী রানী পাহানও তার পরক্রিয়া প্রেমিকের সাথে বিয়েতে রাজি হওয়ায় সালিশে উপস্থিত স্থানিয় ইউপি মেম্বার উজ্জল হোসেনের উপস্থিতিতে গ্রামের রুনু পাহান, বাবলু পাহান সহ মাতব্বররা সিদ্ধান্ত নিয়ে কোর্টের একজন মহুরীকে ডেকে এনে স্টাম্পে লিখিতভাবে আমাদের স্বামী স্ত্রী সম্পর্ক বিচ্ছেদ করা হয়।

এব্যাপারে বক্তব্য নেওয়ার জন্য পরক্রিয়া প্রেমিক সৌখিন পাহানের মুঠোফোনে কলদিলে তিনি ফোন রিসিভ করার পর সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার সাথে সাথে লাইন কেটে ফোন বন্ধ করেন।
এব্যাপারে, পরক্রিয়া প্রেমিক সৌখিন বাড়িতে নেই জানিয়ে বলেন, আসলে তারা খারাপ এবং আমার ছেলেকে ফাঁসানোর জন্য কৌশলে প্রেমের ফাঁদে ফেলেছে ঐ মেয়ে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে গ্রামের কয়েকজন বলেন, সৌখিন স্থানিয় ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ও আদিবাসী পাড়ার সমিতির সভাপতি হওয়ার পর থেকেই সে বেপরোয়া হয়ে পড়েন এবং ঐ নারীর সাথে সম্পর্কে চালিয়ে যান।
স্থানিয় ইউপি মেম্বার উজ্জল হোসেন উপরোক্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমাকে তারা ডেকেছিলেন। বৈঠকে গিয়ে বিস্তারিত জানার পর যখন স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক বিচ্ছেদ বিষয়ে কাগজ ( স্টাম্প) এ লেখার কথা ওঠে সে সময় আমি বৈঠক থেকে চলে এসেছি জানিয়ে তিনি আরো বলেন, আমি আসার পর স্থানিয়রা নাকি বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন এবং এরপর পরক্রিয়া প্রেমিক নাকি পালিয়ে যাওয়ার কারনে পরক্রিয়া প্রেমিকা তার ভাইয়ের সাথে পিতার বাড়িতে গেছেন বলেই জেনেছি এছাড়া মেয়েটির আপন বড় ছেলেই পরক্রিয়া প্রেমিক সৌখিন সহ তার মাকে ঘড়ে আটক করেছিলেন বলেও নিশ্চিত করেছেন তিনি। ঘটনার ৫ দিন পেড়িয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত বিয়ে ত দূরের কথা ঘটনার মূল নায়ক পরক্রিয়া প্রেমিক সৌখিন পাহান পালিয়ে রয়েছেন জানিয়ে বলেন, বিয়ে করলে সে পালিয়ে যেত না, ঘটনাটি ধামাচাপাদিতে গ্রামের কতিপয় মাতব্বরদের পরামর্শেই সে পালিয়ে রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

© ২০২০ | আজকের নওগাঁ কর্তৃক সর্বসত্ব ® সংরক্ষিত

Developed By: Rezaul24